সুস্থ থাকতে এই ৭টি বদ অভ্যাস এখনই ছাড়ুন

সব সময় যে কোনও জীবাণু বা জীবনযাত্রাগত ভুলের কারণেই আমরা অসুস্থ হয়ে পরি, এমন নয় কিন্ত! আমাদের কিছু বদ-অভ্যাসও এক্ষেত্রে দায়ি থাকে। যেমন ধরুন এই লেখায় আলোচিত বদ কাজগুলির কথাই ধরুন। এগুলি নানা ভাবে আমাদের অসুস্থ করে তোলে। তবু সেদিকে আমাদের খেয়ালই থাকে না।

শরীরই আমাদের সবথেকে বড় সম্পদ। তাই তো এই সম্পদকে ঠিক ভাবে রাখাটা আমাদের সকলেরই প্রথম কর্তব্য। আর যদি এমনটা না করতে পারেন, তাহলে হাসপাতালের বিছানা তো অপেক্ষা করেই রয়েছে। তাই সিদ্ধান্ত আপনার, যদি সুস্থ থাকতে চান, তাহলে এই লেখায় আলোচিত কু-অভ্যাসগুলিকে ভুলে যেতে হবে। না হলে কিন্তু বিপদ!

১. প্রস্রাব চেপে রাখা
এমনটা করলে ইউ টি আই, ব্লাডার ইনফেকশন সহ একাধিক জটিল রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। তাই তো এবার থেকে আর ভুলেও প্রস্রাব চেপে রাখবেন না।

২. সব সময় চুইংগাম খাওয়া
আপনিও যদি এমন অভ্যাসের শিকার হন তাহলে সাবধান হওয়ার সময় এসে গেছে। কারণ চিকিৎসকদের মতে দীর্ঘ সময় চুইং গাম খেলে চোয়ালে ব্যথা এবং স্টিফনেস হতে পারে। কিছু ক্ষেত্রে মারাত্মক যন্ত্রণা হওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাই সাবধান!

৩. নখ খাওয়া
ছোট থেকেই বাবা-মায়েরা শেখান নখ না খেতে। কিন্তু আমরা শুনি কি? আপনাদের কি জানা আছে যে এমন অভ্যাসের কারণে স্টমাক সম্পর্কিত নানা ধরনের রোগ হতে পারে। এমনকী স্টমাক ইনফেকশন হওয়ার আশঙ্কাও বৃদ্ধি পায়। আসলে নখে জমে থাকা ময়লা শরীরে মধ্যে প্রবেশ করে নানা ধরনের রোগ হওয়ার পথকে প্রশস্ত করে। তাই এ বিষয়ে আমাদের সকলেরই খেয়াল রাখাটা একান্ত প্রয়োজন।

৪. দাঁত পরিষ্কার করা
প্রতিদিন সকাল-বিকাল ঠিক মতো দাঁত পরিষ্কার না করলে দাঁতের ফাঁকে ময়লা জমতে শুরু করে। এক সময়ে গিয়ে সেই ময়লা থেকে নানা ধরনের রোগ হয়। তাই তো যারা মুখ পরিষ্কার করতে বা দাঁত মাজতে উদাসিন, তাদের সাবধান হওয়ার সময় এসে গিয়েছে।

৫. দীর্ঘক্ষণ কম্পিউটারের সামনে বসে থাকা
৬ ঘন্টার বেশি এক টানা কম্পিউটারে সামনে বসে থাকলে চোখের স্বাস্থ্য খারাপ হতে শুরু করে। সেই সঙ্গে স্ট্রেস এবং রক্ত চাপ বেড়ে যাওয়ার মতো সমস্যাও দেখা দেয়।

৬. দিনের বেশিরভাগ সময় বসে থাকা
একাধিক কেস স্টাডি করে দেখা গেছে যারা দিনের বেশিরভাগ সময় বসে কাজ করেন তাদের ওজন বৃদ্ধি, আর্থ্রাইটিস এবং নানাবিধ হার্টের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বহু গুণে বৃদ্ধি পায়। তাই যাদের বসে কাজ করতে হয়, তারা কাজের ফাঁকে একটু হাঁটাহাঁটি করতে ভুলবেন না যেন।

৭. ভুল জুতো পরা
ঠিক মাপের জুতো না পরলে পা এবং পিঠের মারাত্মক ক্ষতি হয়। শুধু তাই নয়, একাধিক সমীক্ষায় একথা বারংবার উঠে এসেছে যে হিল জুতে পরা শিরদাঁড়া এবং পায়ের জন্য একেবারেই ভাল নয়। তবু অনেকে এমন ভুল কাজ করে চলেছে। তবে আর নয়। এখনই সাবধান হন, না হলে কিন্তু কম বয়সেই অর্থোপেডিকের দারস্থ হওয়া ছাড়া কোনও উপায়ই থাকবে না।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন