জেনে নিন কোন ফেসিয়াল কোন ধরনের ত্বকের জন্য !!

জেনে নিন কোন ফেসিয়াল কোন ধরনের ত্বকের জন্য
গোল্ড ফেসিয়াল:
সব ধরনের ত্বকের জন্যই উপকারী, শুধু সেনসিটিভ বা স্পর্শকাতর ত্বকে এই ফেসিয়াল করা যাবে না। এটা সব বয়সী ত্বকের জন্য নেওয়া যাবে। বিশেষ করে বিয়ের কনের জন্য গোল্ড ফেসিয়াল খুব ভালো ফলাফল দেবে। কারণ এটা ত্বকে সুন্দর একটা সোনালি আভা এনে দেয়।

পার্ল ফেসিয়াল:
পার্ল ফেসিয়াল সব ধরনের ত্বকের জন্য প্রযোজ্য, তবে স্পর্শকাতর ত্বকে এই ফেসিয়াল বেশ কার্যকর। একটু বয়স বেশি হলে পার্ল ফেসিয়াল করা উচিত। পার্ল ফেসিয়াল করার পর ত্বকে অফহোয়াইট একটা আভা আসে এবং অনেক দিন দীর্ঘস্থায়ী হয়।

অ্যালোভেরা ফেসিয়াল:
যাদের ত্বকে বিভিন্ন প্রকার দাগ আছে তারা এই ফেসিয়াল নিতে পারেন। এতে করে ত্বকের সেলের উন্নতি হয়। শুষ্ক ত্বকের জন্য এই ফেসিয়াল খুবই উপকারী। তবে স্পর্শকাতর ত্বকের জন্য অ্যালোভেরা ফেসিয়াল করা যাবে না। রোদে পোড়া ভাব দূর করতেও এটি সাহায্য করে।

ফ্রুট ফেসিয়াল:
এই ফেসিয়ালে যে মিক্সড ফ্রুট ক্রিম ব্যবহার করা হয় যা সব ধরনের ত্বকের জন্য ভালো যায়। বিশেষ করে ফ্রুট ফেসিয়াল ত্বকের গভীর থেকে ময়লা পরিষ্কার করে। ত্বক টান টান রাখে। একমাত্র ফ্রুট ফেসিয়ালই স্পর্শকাতর ত্বকের জন্য উপযোগী।

অ্যারোমা ফেসিয়াল:
অ্যারোমা ফেসিয়াল বিয়ের কনেদের জন্য কার্যকরী। অর্থাৎ যাঁরা কিছু দিন পর বিয়ের কনে সাজতে যাচ্ছেন তাঁদের জন্য এই ফেসিয়াল উপযোগী এবং এই ফেসিয়াল সব ধরনের ত্বকের জন্যই উপযোগী।

পিম্পেল ফেসিয়ালঃ
এই ফেসিয়াল তৈলাক্ত ত্বকের এবং ব্রনে আক্রান্তদের জন্য উপকারী। বড় ছোট সবাই এটা করতে পারেন। নিয়মিত মাসে দুবার এই ফেসিয়াল করলে পিম্পেল আস্তে আস্তে কমে আসবে।

অ্যান্টি-রিংকেল ফেসিয়ালঃ
অতিরিক্ত শুষ্ক ত্বক, যাদের রিঙ্কেল পরার সম্ভাবনা খুব বেশি তারা এই ফেসিয়াল করবেন। বয়স বাড়ার সাথে সাথে চামড়া কুঁচকে যাওয়া, ভাঁজ পড়া বা ঝুলে যাওয়া ইত্যাদি নানা সমস্যা তৈরি হয়। অ্যান্টি-রিংকেল ফেসিয়াল এসব সমস্যা সমাধান করে আপনার ত্বকে মসৃণতা ফিরিয়ে আনবে।

কীভাবে বুঝবেন আপনার ত্বকের প্রকৃতিঃ
সকালবেলায় ঘুম ভাঙার পর মুখে পানি না দিয়ে একটা টিস্যু পেপার নিয়ে মুখের ওপর চেপে ধরুন। তারপর পেপারটি ভালো করে লক্ষ্য করুন। বুঝতে পারবেন আপনার ত্বকের প্রকৃতি।

এবার আমরা জানব ত্বকের ধরন-
স্বাভাবিক ত্বক : টিস্যু পেপারে সামান্য তৈলাক্ত ভাব দেখতে পাবেন।
শুষ্ক ত্বক : টিস্যু পেপারে তৈলাক্ত ভাব দেখা যাবে না।
তৈলাক্ত ত্বক : টিস্যু পেপারে বেশি পরিমাণে তৈলাক্ত ভাব দেখা যাবে।
মিশ্র ত্বক : টিস্যু পেপারে বিভিন্ন অংশে ভিন্ন ভিন্ন ছোপ ফুটে উঠবে।

নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন